মুহাম্মদ আতিকুর রহমান (আতিক):  গাজীপুরে বৃহত্তর চট্টগ্রাম সমিতির উদ্যোগে বার্ষিক মেজবান ও মিলনমেলা- ২০১৮ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ উপলক্ষে ৯ মার্চ শুক্রবার দিনব্যাপী গাজীপুরে আবস্থিত বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বারি)-এর কাজী বদরুদ্দোজা মিলনায়তনের সামনে আয়োজন করা হয় আলোচনা সভা, কৃতি ছাত্র/ছাত্রীদের সংর্বধনা, বৃত্তি প্রদান ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের। এ ছাড়া ছিল চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী মেজবানের খানাপিনার উৎসব। দুপুর ১২টা থেকে মেজবানের খাওয়া-দাওয়া শুরু হয়। চলে বিকাল ৩টা পর্যন্ত।

বৃহত্তর চট্টগ্রাম সমিতি- গাজীপুরের সভাপতি এম. শাহদাৎ হোসেন (সোহেল) এর সভাপতিত্বে ও সাবেক প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক ও নির্বাহী সদস্য ডঃ মোঃ ফরিদুল আলম এবং শিক্ষা ও পাঠাগার সম্পাদক মোঃ নাজিম হোসেনের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন গাজীপুর-২ (গাজীপুর-টঙ্গী) আসনের সংসদ সদস্য ও যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ জাহিদ আহ্সান রাসেল, এমপি।

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সমিতির সহ-সভাপতি মোহাম্মদ সোহেল সাদাত, সহ-সভাপতি এম.এ তাহের, সহ-সভাপতি হেলাল উদ্দিন আহমেদ, সহ-সভাপতি মোঃ নেছারুল ইসলাম কুতুবী, স্মরনিকা উপ-পরিষদের আহ্বায়ক ডঃ মনোরঞ্জন ধর, চট্টগ্রাম সমিতি- কুমিল্লার সাধারণ সম্পাদক আবু জাফর মোঃ সালেহ প্রমুখ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক ডঃ মোঃ সেলিম উদ্দীন।

এ সময় সমিতির উপদেষ্টা, নোমান গ্রুপের ডেপুটি ম্যানেজিং ডাইরেক্টর ও নাইস ডেনিমের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর নূর এ ইয়াসমীন ফাতেমাকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। সমিতির কর্মকর্তারা চট্টলা নামক স্মরণিকার মোড়ক উন্মোচন করেন। এর আগে কর্মকর্তারদের ফুল দিয়ে বরণ করা হয়।

বক্তরা বলেন, ২০১০ সালে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, খাগড়াছড়ি, রাঙ্গামাটি ও বান্দরবান জেলার লোকজন নিয়ে বৃহত্তর চট্টগ্রাম সমিতি- গাজীপুর নামে একটি সংগঠনের আতœ প্রকাশ ঘটে। এ সংগঠনের মাধ্যমে গাজীপুর জেলায় বসবাসরত সমিতির সদস্যগণ ও তাদের পরিবারের সদস্যদেরকে পরিচিতি করানো এবং একান্ত নিকটে বসে চট্টগ্রামের আঞ্চলিক ভাষায় কথা বলে নিবির সম্পর্ক গড়ে তোলা।

মেজবান ও মিলনমেলা অনুষ্ঠানে সমিতির আজীবন সদস্য ও তাদের স্ত্রী-সন্তান ও পরিজন নিয়ে আনন্দঘন দিন উদযাপন করেন। অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী সকলের জন্য ছিল র‌্যাফেল ড্রয়ের আয়োজন।

খানাপিনার পর বিকালে কৃতি ছাত্র/ছাত্রীদের বৃত্তি প্রদান করা হয়। সমিতির আজীবন সদস্যের সন্তানদের মধ্যে যারা ২০১৭ সালের পিইসি, জেএসসি, এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় কৃতিত্বের সাথে জিপিএ-৫ পেয়েছেন তাদের এ অনুষ্ঠানে বৃত্তি প্রদান করা হয়। অতিথিরা বৃত্তি প্রাপ্ত ৩৬ জনের হাতে ক্রেস্ট, সার্টিফিকেট, জনপ্রতি ১ হাজার টাকা তুলে দেন।

অনুষ্ঠানে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ডঃ এস এম মিজানুর রহমান, রাউজান সমিতি- ঢাকার দপ্তর সম্পাদক শওকত আবু ইউছুপ, অর্থ মন্ত্রণালয়ের প্রশাসনিক কর্মকর্তা খালেদ বিন কাশেম টিটু, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অবঃ) দিদারুল আলম চৌধুরীর পুত্র ইহেতেশাম চৌধুরী সাজেদ, গাজীপুর জেলা রিপোর্টার্স ক্লাবের সাধারণ সদস্য সাংবাদিক মুহাম্মদ আতিকুর রহমান (আতিক) এবং সমিতির কার্য নির্বাহী কমিটির নেতেৃবৃন্দসহ প্রায় ৫ হাজার জন উপস্থিত ছিলেন।

পরে শুরু হয় চট্টগ্রামের আঞ্চলিক ভাষায় সংগীতশিল্পীদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠান চলে রাত ১০টা পর্যন্ত।

জিটি/এস এইচ/২০১৮

Share.

Comments are closed.