কাপাসিয়া (গাজীপুর) থেকে শামসুল হুদা লিটনঃ বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অবঃ) আ স ম হান্নান শাহ্’র ইন্তেকালে নিজ নির্বাচনী এলাকা গাজীপুরের কাপাসিয়ার দলীয় নেতা-কর্মী, সমর্থকদের মাঝে সর্বত্র এখন চলছে শোকের মাতম।

Hannan Shah Shokahoto

প্রাণ প্রিয় নেতা হান্নান শাহ্’র মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে বিএনপি দলীয় নেতা-কর্মীরা তাৎক্ষণিক ভাবে শহরে জড়ো হতে থাকে এবং একে অপরকে জড়িয়ে ধরে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। নেতা-কর্মীরা কালো ব্যাজ ধারন করেন। হান্নান শাহ্ ছিলেন কাপাসিয়ার নেতা-কর্মীদের অভিভাবক এবং সাধারণ মানুষের আপনজন। গত ৬ সেপ্টেম্বর হান্নান শাহ্ নিজ বাসায় অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তাকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি করা হয়। সেখান থেকে ১১ সেপ্টেম্বর তাকে সিঙ্গাপুরের র‌্যাফেলস্ হার্ট সেন্টারে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার হৃদযন্ত্রের অস্ত্রপাচার করা হয়।

র্দীঘ ২১ দিন জীবন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে তিনি গতকাল মঙ্গলবার ভোরে ওই হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে তার সয়স হয়েছিল ৭৭ বছর। স্ত্রী নাহিদ হান্নান, ২ পুত্র শাহ্ রেজাউল হান্নান, শাহ্ রিয়াজুল হান্নান ও মেয়ে শারমিন কে রেখে গেছেন। বাংলাদেশের প্রথম এটর্নী জেনারেল ফকির সাহাব উদ্দিন ছিলেন হান্নান শাহ্’র চাচাত ভাই। গাজীপুর জেলা বিএনপির সভাপতি এ কে এম ফজলুল হক মিলন জানান, হান্নান শাহ্’র মৃত্যুতে বুধবার থেকে জেলা ব্যাপী ৩ দিনের শোক ঘোষনা করা হয়েছে এবং নেতা-কর্মীদের কালো ব্যাজ ধারনের জন্য বলা হয়েছে। হান্নান শাহ্’র বড় ছেলে শাহ্ রেজাউল হান্নান গাজীপুর জেলা যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি। ছোট ছেলে শাহ্ রিয়াজুল হান্নান জেলা জাসাসের নেতা।

হান্নান শাহ্’র অবর্তমানে ছোট ছেলেই এলাকার রাজনীতি দেখবাল করছিলেন। হাসপাতালে সঙ্গে থাকা তার কনিষ্ট পুত্র শাহ্ রিয়াজুল হান্নান ও মেয়ে শারমিন জানান, বুধবার সন্ধ্যা ৬ টায় সিঙ্গাপুর থেকে হান্নান শাহ’র লাশ দেশে আনার জন্য চেষ্টা করা হচ্ছে। দলীয় সূত্রে জানাযায়, বৃহস্পতিবার সকাল ৯ টায় মহাখালী নিউ ডিওএইচএস মসজিদে প্রথম জানাযা, সকাল ১১ টায় জাতীয় সংসদ চত্বরে ও বাদ জোহর নয়া পল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে জানাযা অনুষ্ঠিত হবে। শুক্রবার সকাল ৯ টায় গাজীপুরের রাজবাড়ি মাঠে, সকাল সাড়ে ১০ টায় কাপাসিয়া পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এবং সর্বশেষ হান্নান শাহ্’র নিজ গ্রাম ঘাগটিয়া চালা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে নামাজে জানাযা অনুষ্ঠিত হবে। পরে ঘাগটিয়ার পারিবারিক গোরস্তানে পিতা-মাতার কবরের পাশে দাফন করা হবে। আশির দশকের তুখোড় ছাত্র নেতা উপজেলা ছাত্র দলের সাবেক সভাপতি ও উপজেলা বিএনপির সহ-সাধারণ সম্পাদক ফকির কামাল হোসেন জানান, হান্নান শাহ’র আকস্মিক মৃত্যুতে কাপাসিয়ার বিএনপি নেতা শূণ্য হয়ে পড়বে। এ ক্ষতি কোন অবস্থায়ই পুরন করার মত নয়।

ফখরুদ্দিন-মঈন উদ্দিন সরকারের আমলে তাকে বার বার কারা বরণ করতে হয়েছে। বিশেষ করে আপোষহীন এ নেতা স্বৈরাচারী এরশাদ সরকারের সময়েও র্দীঘ ৯ মাস কারান্তরিন ছিলেন। র্দীঘ দিনের বিএনপির রাজনৈতিক কর্মকান্ডে বিশাল পরিচিতি রেখে গেছেন। হান্নান শাহ্’র মৃত্যুতে গভীর শোক ও শোক-সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন, সাবেক এমপি ও কাপাসিয়া উপজেলা বিএনপির সাবেক আহবায়ক মোঃ উবায়দুল্লাহ, বিএনপির প্রবীন নেতা অর্থনীতিবিদ আব্দুল মজিদ, গাজীপুর জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান খন্দকার আজিজুর রহমান পেরা জানান, উপজেলা বিএনপির সভাপতি খলিলুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন সেলিম, সাবেক সভাপতি অধ্যাপক এমদাদুল হোসেন, জামাল উদ্দিন আহমদ।

 

জিটি/২৭/০৯/২০১৬/এস এইচ

Share.

Comments are closed.