ডেস্ক রিপোর্ট : হিজড়াদের যন্ত্রণায় অস্থির। রাস্তাায় হাটা-চলা, যানবাহন, বাসাবাড়ি, দোকানপাট কোথাও এদের হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যাচ্ছে না। সামনে দাড়ালে টাকা না দিয়ে উপায় নেই। মনে হয় প্রকাশ্যে ডাকাতি।

সাংবাদিক এস এম নূর মোহাম্মাদ

সাংবাদিক এস এম নূর মোহাম্মাদ

মা আমাকে ফোন করে জানালো গত বৃহস্পতিবার দুপুরে বাড়িতে হানা দেয় ৫-৬ জনের একটি হিজড়া দল। ঘড়ে ঢুকেই আমার ছোট ছেলেকে তারা জিম্মি করে। টাকা না দিলে ছেলেকে ছাড়বে না। এসময় অনেক বাক-বিতণ্ডার পর তাদেরকে ১৫০০ টাকা দিয়ে বিদায় করতে হয়। বলতে গেলে তাতেও তারা যেতে রাজি হচ্ছিল না।

তাদের দাবি আরও দিতে হবে। আপনারা বলেন, এটি কি প্রকাশ্যে ডাকাতি নয় ? আবার এদের ওপর স্থানীয়রা চড়াও হলে হয়তো আমরাই পত্রিকায় রিপোর্ট লিখতাম ‍‍‍‍‍‌‌‌‌‌‌‌‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍”‍‍‍‍হিজড়াদের ওপর হামলা”‍‍‌‌‌‌‌।

তখন প্রশাসনের লোকজনও তাদের পক্ষে থেকে স্থানীয়দেরকে হেনস্থা করতো। তাদের পক্ষে দাড়িয়ে যেত বেশ কিছু সংগঠনও। আর এটি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও তোলপাড় শুরু হতো।

কিন্তু হিজড়ারা যা করছে তা নিয়ে আমরা কেউ কোন কথা বলি না। এদের একটি চক্র মানুষের কাছ থেকে টাকা ছিনিয়ে আনছে। আর সেই টাকা ঘরে বসে হাতিয়ে নিচ্ছে তাদেরই গুরু বা মাসি নামের কেউ একজন।
আমাদের কি করণীয় আছে ?
(সাংবাদিক এস এম নূর মোহাম্মাদের ফেসবুক স্ট্যাটাস থেকে নেয়া)

জিটি/০১/০৯/১৬/০০৭

Share.

Comments are closed.